,

ThemesBazar.Com

ঘাটাইলে ভোটকেন্দ্রে গোলাগুলিতে নিহত ১

Spread the love

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের একটি কেন্দ্রে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় একজন নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম আব্দুল মালেক (৪৫)। তিনি গুপ্তবৃন্দাবন গ্রামের নেছার উদ্দিনের ছেলে।

বৃহস্পতিবার ভোররাতে সাগড়দিঘী ইউনিয়নের গুপ্তবৃন্দাবন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। ওই কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

ঘাটাইল থনাার ওসি মহিউদ্দিন বলেন, গভীরাতে অস্ত্র নিয়ে একদল দুষ্কৃতিকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তার রুমে ঢুকে ব্যালট পেপার জোরপূর্বক ছিনিয়ে নিচ্ছিল। এসময় পুলিশ তাদের বাধা দিলে তারা পুলিশের ওপর আক্রমণ করে। খবর পেয়ে এলাকাবাসীও তাদের ধাওয়া করে। পুলিশ ১২ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এ ঘটনায় একজনের মৃত্যুর খবর শুনেছি।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় বলেন, রাতে একদল দুষ্কৃতিকারী ব্যালট পেপার ছিনতাই করতে আসলে পুলিশ প্রিজাইডিং কর্মকর্তার নির্দেশক্রমে তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। তবে কতো রাউন্ড গুলি করা হয়েছে তার হিসেব তিনি দেননি।

জানা গেছে, তিনটি ইউনিয়ন ভেঙে সংগ্রামপুর, সন্ধানপুর, রসুলপুর, ধলাপাড়া, লক্ষীন্দর ও সাগরদীঘি এই ছয়টি ইউনিয়ন গঠন করা হয়। ২০১৬ সালে উপজেলার ৮ ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও আইনি জটিলতার কারণে নবগঠিত ও পুনঃগঠিত এই ছয় ইউনিয়নে তখন নির্বাচন হয়নি। পরবর্তীতে আইনি বাধা কাটিয়ে এই ছয়টি ইউনিয়নে আজ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

সাগড়দিঘী ইউনিয়নের গুপ্তবৃন্দাবন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে পুলিশ ভোট কেন্দ্র পাহাড়া দিচ্ছিলেন। রাত তিনটার সময় একদল দুষ্কুতিকারী অস্ত্র উঁচিয়ে ভোট কেন্দ্র দখল করে ব্যলট পেপার কেড়ে নিয়ে বাক্সে ভর্তি করতে থাকে। এসময় পুলিশ ও এলাকাবাসী তাদের বাধা দেয়। দুষ্কৃতিকারীরা ফাঁকা গুলি ছুড়ে ভীতি প্রদর্শন করলে পুলিশও তাদের লক্ষ্য করে পাল্টা গুলি চালায়। এসময় আব্দুল মালেক নামের একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন।

জেলা নির্বাচন অফিসার তাজুল ইসলাম জানান, ওই কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়েছ। কেন্দ্রের ভোট সংখ্যা ২ হাজার ১৪৫। অন্যান্য কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

ThemesBazar.Com

      আরো পড়ুন