স্ত্রীকে দিয়ে ৩ হাজার জনের সঙ্গে প্রতিতাবৃত্তি, কাঠগড়ায় স্বামী

ফ্রান্সের প্যারিসের গত ৪ বছরে ২ হাজার ৭৪২ জন পুরুষের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপনে নিজের স্ত্রীকে (৪৬) বাধ্য করেছেন এক লম্পট স্বামী (৫৪)। এতে প্রতিমাসে সেখান থেকে তিনি ওই ব্যক্তি আয় করতেন প্রায় ৫ হাজার পাউন্ড। অবশেষে বিচারের মুখোমুখি করা হয়েছে ওই ব্যক্তিকে। খবর ডেইলি মেইলের।

খবরে বলা হয়, ফ্রান্সে পতিতাবৃত্তি বৈধ। কিন্তু কাউকে এ ব্যবসায় প্রভাবিত বা অনুরোধ করাও বেআইনি। ওই পুরুষ চারটি ওয়েবসাইট ও মোবাইল ফোনের বার্তার মাধ্যমে খদ্দেরদের সঙ্গে তার স্ত্রীর সংসর্গের ব্যবস্থা করতেন।

খবরে বলা আরও হয়, প্রথমে ওই দম্পতিকে গ্রেপ্তার করা হলেও, তদন্তের পর শুধুমাত্র স্বামীকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। ওই স্বামীর নাম আইনি কারণে বলা যাবে না। প্যারিসের শহরতলিতে স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে বসবাস করতেন তিনি। সেখানেই নিজের স্ত্রীকে কার্যত পতিতাবৃত্তিতে লিপ্ত হতে বাধ্য করান তিনি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, স্ত্রী যখন খদ্দেরদের স্বাগত জানাতেন, তখন তিনি ঘরের বাইরে গিয়ে বসতেন। খদ্দেরের কাজ শেষ হওয়া পর্যন্ত নিজের ৫ বছর বয়সী শিশু সন্তানকে নিয়ে ঘরের বাইরে পারিবারিক গাড়িতে বসে থাকতেন ওই ব্যাক্তি। এতে তার আয় হতো প্রতিমাসে প্রায় ৫ হাজার ইউরো।

প্যারিসের উত্তরে মিয়াওক্স শহরের অপরাধ আদালতের কৌঁসুলি এমানিয়েল ডুপিক বলেন, প্রতিতাবৃত্তি বৈধ হলেও ওই স্বামী তার স্ত্রীর ওপর মানসিক প্রভাব খাটিয়ে এ কাজা করেছেন। এতে করে ওই নারী খদ্দেরদের মানা করতে পারতেন না। ওই খদ্দেরদের অনেকে তার সঙ্গে নিষ্ঠুর আচরণ করতো। অভিযোগ প্রমাণিত হলে, এক দশকের সাজা হতে পারে তার। গত মঙ্গলবার ওই ব্যক্তিকে আটক করা হলেও বর্তমানে জামিনে মুক্ত আছেন তিনি।

, , , ,
শর্টলিংকঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *