রক্তে লাল স্কুলছাত্রীর ড্রেস, জড়িয়ে ধরেছিল নিথর যুবক

হৃদয় বিদারক সে দৃশ্য। রক্তে লাল স্কুলড্রেস পরা ছাত্রীর লাশ। তাকে জড়িয়ে নিথর অবস্থায় পড়ে আছে রক্তাক্ত আরেক যুবক। দুজনের শরীরেই ছুরির আঘাত। আজ শনিবার বিকেল পৌনে ৩টার দিকে চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়নের বেলতল রেললাইনের পাশে পড়েছিল তারা। বেলা সাড়ে ৪টার দিকে তাদের উদ্ধার করতে যায় পটিয়া থানা পুলিশ। নিথর দেহ দেখে প্রথমে মনে হয়েছিল দুজনেই মৃত। কিন্তু দেখা গেল যুবকের প্রাণ এখনো আছে।

দ্রুত তাকে পাঠানো হয় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। পটিয়া থানার এসআই আলমগীর হোসেন বলেন, যুবকের দেহ নড়াছাড়ার সময় গোঙানীর শব্দ কানে আসে। তার পেটে ছুরির আঘাত রয়েছে। তবে স্কুলছাত্রীর পেটে একাধিক ছুরিকাঘাত। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বিষয়টি প্রেমঘটিত।

তিনি বলেন, মনে হচ্ছে যুবকটি প্রেমে প্রত্যাখ্যাত হয়ে স্কুলছাত্রীকে ছুরিকাঘাতে খুন করেছে। আর সে নিজেও ছুরিকাঘাতে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। খুন হওয়া স্কুলছাত্রী পটিয়া উপজেলার হাইদগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী। তার নাম রিমা আক্তার। উপজেলার দক্ষিণ ভূর্ষি এলাকার বাসিন্দা। আর আহত যুবকের পরিচয় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। তবে স্কুলছাত্রী রিমা আক্তারের পরিবারে খবর দেয়া হয়েছে। তারা এলেই রহস্যের জট খুলতে পারে বলে জানান এসআই আলমগীর হোসেন।

পটিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মোহাম্মদ নেয়ামত উল্লাহ বলেন, বেলতল রেললাইনের পাশে নিহত স্কুলছাত্রীকে জড়িয়ে আহত যুবককে পড়ে থাকতে দেখে উৎসুক জনতার ভিড় জমে। পরে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে। প্রথমে মনে করা হয়েছিল দুজনই মারা গেছে। পরে গোঙানির শব্দ পেয়ে যুবকের বেঁচে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। পুলিশ আহত যুবককে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেছে।

উৎসঃ   মানবজমিন
,
শর্টলিংকঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *