যুক্তরাষ্ট্র থেকেই দুবাইতে দলের সঙ্গী হবেন সাকিব!

অনির্বাণ  নিউজের পাঠকদের জানা, হজব্রত পালন শেষে বুধবার রাতে দেশে ফিরে পরদিনই স্ত্রী ও কন্যার সঙ্গে মিলিত হতে যুক্তরাষ্ট্র চলে গেছেন সাকিব আল হাসান। এখনও তিনি যুক্তরাষ্ট্রেই পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন।

এদিকে, কাল রোববার থেকে এশিয়া কাপের স্কিল ট্রেনিং শুরু টাইগারদের। ঠিক এক সপ্তাহ ট্রেনিং শেষে ৯ সেপ্টেম্বর আরব আমিরাতের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবে মাশরাফির দল। ক্রিকেটপাড়ায় চাপা গুঞ্জন, কবে আমেরিকা থেকে ফিরবেন সাকিব? কয়দিন প্র্যাকটিস করে যাবেন এশিয়া কাপ খেলতে?

এ প্রশ্নের জবাব খুঁজতেই বেরিয়ে এসেছে নতুন তথ্য। সাকিব আপাতত আর দেশে ফিরছেন না। ৯ সেপ্টেম্বর আমেরিকা থেকে সরাসরি সংযুক্ত আরব আমিরাতে জাতীয় দলের সঙ্গী হবেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

সাকিবের একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র আজ রাতে জাগো নিউজকে এই তথ্যটি নিশ্চিত করেছে। তবে সাকিব সত্যিই ৯ সেপ্টেম্বরের আগে দেশে প্র্যাকটিস করবেন, কিংবা দেশে না এসে যুক্তরাষ্ট্র থেকে সরাসরি দুবাই যাবেন, তা নিশ্চিত করে বলতে পারেননি প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। তার জানা নেই, সাকিব কি করবেন।

এদিকে, জাতীয় দল পরিচালনা, পরিচর্যা ও তত্ত্বাবধানের দায়িত্ব যে স্ট্যান্ডিং কমিটির উপর-বিসিবির সেই ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান জাগো নিউজকে প্রথমে বলেন, ‘হ্যাঁ, সাকিব দুবাইতেই দলের সঙ্গে মিলবেন। যেহেতু হজ করে এসেছে, তাই শারীরিক ও মানসিক বিশ্রাম প্রয়োজন। সে কারণেই হয়তো সরাসরি আরব আমিরাতে দলের সঙ্গী হবেন সাকিব।’

নিয়ম অনুযায়ী তো ক্রিকেট অপস চেয়ারম্যানের কাছ থেকেই ছুটি নেয়ার কথা সাকিবের। তাহলে ‘হয়তো’ কেন? অাকরাম খানের অস্ফুট জবাব শুনে মনে হলো, ক্রিকেট বোর্ডের অভিভাবক নাজমুল হাসান পাপনের কাছ থেকেই ছুটি মঞ্জুর করিয়ে নিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

শর্টলিংকঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *