মোটা মানুষের সংখ্যার বিচারে বিশ্বের প্রথম ১০ দেশ

কোনও দেশের জনসংখ্যার যদি প্রায় অর্ধেক মানুষই অস্বাভাবিক মোটা হন, তখন বিষয়টা নিয়ে জোর চর্চা হওয়াটাই স্বাভাবিক! বছর খানেক আগে একটি সমীক্ষায় উঠে এসেছে, এমন ১০টি দেশের নাম, যেখানে মোটা মানুষের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেই দেশগুলোর নাম আর কিছু খুঁটিনাটি তথ্য।

ত্রিনিদাদ ও টোবাগো
সমীক্ষায় ১০ নম্বরে উঠে এসেছে এই দেশের নাম। দেশটি দক্ষিণ ক্যারিবিয়ান সাগরের একটি প্রজাতান্ত্রিক রাষ্ট্র। এর রাজধানীর নাম পোর্ট অব স্পেন। এই দেশটিতে মোটা মানুষের বসবাস দেশের মোট জনসংখ্যার ৩০%।

ভেনিজুয়েলা
দেশটি পৃথিবীর ৪২তম জনবহুল রাষ্ট্র এবং জনসংখ্যা প্রায় ২৭,৭৩০,৪৬৯। এই দেশটিতে মোটা মানুষের সংখ্যা দেশের মোট জনসংখ্যার ৩০.৮%।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
দেশটির জনসংখ্যা প্রায় ৩১ কোটি। সমীক্ষায় ৮ নম্বরে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং এখানে বর্তমান মোটা মানুষের বসবাস দেশের মোট জনসংখ্যার ৩১.৮%।

মেক্সিকো 
জনসংখ্যার হিসাব করতে গেলে মেক্সিকো পৃথিবীর অত্যন্ত জনবহুল একটি রাষ্ট্র। সমীক্ষা অনুযায়ী এই দেশটিতে প্রতি বছরই মোটা মানুষের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে আর এখন তা দাঁড়িয়েছে দেশের মোট জনসংখ্যার ৩২.৮%-এ।

দক্ষিণ আফ্রিকা
দেশটিতে মোটা মানুষের সংখ্যাও অনেক। দক্ষিণ আফ্রিকায় বর্তমান মোটা মানুষের সংখ্যা দেশের মোট জনসংখ্যার ৩৩.৫%।

সংযুক্ত আরব আমিরত 
বর্তমান জনসংখ্যা প্রায় ৪,৭৯৮,৫০০ যার মধ্যে ৩৩.৭% মানুষই মোটা।

জর্ডান 
এখন মোটা মানুষের সংখ্যা দেশের মোট জনসংখ্যার ৩৪.৩%।

মিশর
মরুভূমি, নীলনদ আর পিরামিডের দেশ হলো মিশর। বর্তমানে মিশরের মোটা মানুষের সংখ্যা দেশের মোট জনসংখ্যার ৩৪.৬%।

সৌদি আরব
চিকিৎসকদের মতে, সৌদিতে প্রতি ১০০ জন মানুষের মধ্যে গড়ে ৪০ জন মানুষই মোটা এবং ধারণা করা হচ্ছে খুব দ্রুত হয়তো এই দেশটি সমীক্ষা ১ নম্বর স্থানে চলে আসতে পারে। আপাতত এই দেশে মোটা মানুষের বসবাস হল দেশের মোট জনসংখ্যার ৪০%।

কুয়েত
উপসাগরীয় যুদ্ধের সময় মার্কিন সেনারা যখন প্রথম কুয়েত যায়, তখন তারাই সেখানে ফাস্টফুড-এর প্রচলন করে। সেই থেকেই কুয়েতেই নির্মাণ হয় অসংখ্য ফাস্টফুড-এর দোকান। আর এখন বর্তমান সমীক্ষা অনুযায়ী, এই দেশের ৪২.৮% মানুষই মোটা।

শর্টলিংকঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *