বিচারের অপেক্ষায় সোনিকার পরিবার

একমাত্র মেয়েকে হারিয়ে বিচারের অপেক্ষায় প্রহর গুনছেন মডেল সোনিকা সিংহ চৌহানের বাবা-মা। কিন্তু সাম্প্রতিক কিছু ঘটনায় তারা বিচলিত।

এদিকে প্রচলিত প্রবাদকে আবার ফের যেন সত্যি প্রমাণ করল সোনিকার মৃত্যু। মাসখানেক আগে লেক মলের কাছে গাড়ি দুর্ঘটনায় প্রাণ যায় সোনিকার। সে দিন চালকের আসনে থাকা অভিনেতা বিক্রম এখন অনেকটাই ট্রমা মুক্ত। আসন্ন ছবি ‘খোঁজ’-এর প্রচার শুরু করে দিয়েছেন জোর কদমে। ওই ঘটনার পর প্রকাশ্যে সাধারণ মানুষের মাঝে দাঁড়িয়ে প্রচার করছেন না বিক্রম। সে সব সামলাচ্ছেন পরিচালক অর্ঘ্য গঙ্গোপাধ্যায়। তবে টেলিভিশন শো-এ এসে বা ঘনিষ্ঠ মিডিয়ায় নিয়ম মেনেই প্রচার করছেন বিক্রম। ঘটনার পর পরই ‘ইচ্ছে নদী’ ধারাবাহিকের শুটিংও শেষ করেছেন তিনি। অর্থাৎ তাঁর জীবন চলছে নিজস্ব নিয়মেই। কাজে ফিরেছেন তিনি।

শুধু এক জায়গায় জীবন যেন থমকে গিয়েছে। থমকে রয়েছে চৌহান পরিবারের ভাল থাকার মুহূর্ত। মেয়েকে হারিয়ে বিচারের অপেক্ষায় রয়েছেন সোনিকার বাবা-মা। মেয়ের স্মৃতি ছড়িয়ে রয়েছে কলকাতার বাড়িতে। সেখানে থাকতে পারছেন না কোনও ভাবেই। তাই বাধ্য হয়েই শহর ছেড়েছিলেন চৌহান দম্পতি।

একটি সূত্রের খবরে বলা হয়েছে, বেঙ্গালুরুতে ছিলেন চৌহান দম্পতি। সোনিকার ঘনিষ্ঠ বন্ধু, আত্মীয়রা পুলিশের আচরণে কিছুটা অবাক! কয়েক দিন আগে সোনিকার সমাধিস্থলে গিয়ে বিক্রমের বসে থাকাটাও তাঁদের অনেকের কাছেই মনে হয়েছে লোক দেখানো। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে বিক্রমকে কটাক্ষ করে মুখও খুলেছিলেন সোনিকার ঘনিষ্ঠ বান্ধবী মডেল রুক্মিণী। তিনি লিখেছিলেন, ‘বিক্রম নাটক করছেন’। সোনিকার পরিবার ও আত্মীয়েরা চাইছেন, তদন্তে আসল সত্যিটা বেরিয়ে আসুক। কিন্তু আদরের ‘সোনু’র মৃত্যুর একমাস পরেও তাঁরা অথৈ জলেই! তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার।

শর্টলিংকঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *