পিরোজপুরে তিন মাথা সাদৃশ্য অদ্ভুত শিশুর জন্ম

অনির্বাণ নিউজ ডেস্ক ●পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলায় জন্ম নিয়েছে অদ্ভুত আকৃতি এক ছেলে শিশু। বুধবার ভোরে ভাণ্ডারিয়া উপজেলার একটি ক্লিনিকে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে জন্ম নেয় তিনটি মাথা সাদৃশ্য এ শিশুটির। শিশুটি পিতা মামুন হাওলাদার পার্শবতী জেলা ঝালকাঠীর কাঁঠালিয়া উপজেলার আমুয়া গ্রামের বাসিন্দা।

শিশুটির দাদা শাহজাহান হাওলাদার জানান, বুধবার ভোর রাতে প্রসব বেদনা নিয়ে ভান্ডারিয়া উপজেলার ফাতেমা ক্লিনিক এন্ড নার্সিং হোমে ভর্তি হন রেহেনা আক্তার। পরে সকাল সাড়ে ৬ টায় দিকে তিনি একটি ছেলে সন্তানের জন্ম দেন। জম্মের পরে দেখা যায় শিশুটির তিন মাথা আকৃতির, বিশেষ অঙ্গ নেই, চোখ দু’টো পাশাপাশি কপালের মধ্যে, হাত দু’টো বাকা। তার ওজন হয় তিন কেজি ৭ শত গ্রাম। জম্মের পর থেকে শিশুটি অনেকটা অসুস্থ্য রয়েছে।

শাহজাহান হাওলাদার জানান, চার বছর আগে তার ছেলের বিয়ে হয়। এটি প্রথম সন্তান। তার ছেলে রাজধানীতে একটি রডের দোকানে সামান্য কর্মচারী। তার পক্ষে শিশুর চিকিৎসার ব্যয় বহন ও জীবন বাঁচানো অসম্ভব হয়ে পরবে। এদিকে শিশুটির জন্মের খবর ছড়িয়ে পড়লে শিশুটিকে এক নজর দেখার জন্য ক্লিনিকে ভিড় জমায় উৎসুক জনতা।

ভাণ্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. এইচ এম জহিরুল ইসলাম জানান, অদ্ভুত আকৃতির জন্ম নেয়া এ শিশুটি হাইড্রসেফালাস রোগে আক্রান্ত। উন্নত চিকিৎসার জন্য শিশুটিকে বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজে ভর্তির পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

, ,
শর্টলিংকঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *